‘এসপি স্যারের বলিষ্ঠ হস্তক্ষেপের কারণে নগরকান্দায় ভোট সুষ্ঠ হচ্ছে’ মন্তব্য স্থানীয়দের

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর টাইমস:

ফরিদপুরের নগরকান্দা পৌরসভার সাধারণ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে আজ রবিবার সকাল ৮টা হতে। বিকেল চারটা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলবে। তবে ভোট দিতে সকাল ৮টার আগে থেকেই কেন্দ্রগুলোতে নারী ও পুরুষ ভোটারদের লম্বা লাইন চোখে পড়েছে। যদিও ভোট গ্রহণে ধীর গতি লক্ষ্য করা গেছে।

কয়েকজন প্রার্থী ও তাদের কর্মী সমর্থকদের সাথে কথা বলে জানা গেলো, সব আশঙ্কাকে নস্যাত করে দিয়ে অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যবস্থাই পরিলক্ষিত হচ্ছে এখন পর্যন্ত। ভোটারেরা শান্তিপূর্ণভাবেই ভোট দিতে পারছেন। এজন্য সূর্য উঠার পরে হতেই তারা চলে এসেছেন ভোট কেন্দ্রগুলোতে।

এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী নিমাই সরকার নগরকান্দা মাদ্রাসা কেন্দ্র পরিদর্শনের সময় এই প্রতিবেদককে বলেন, ভোটারদের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতিই প্রমাণ করে যে নির্বাচন সুষ্ঠ হচ্ছে। আশা করছি শান্তিপূর্ণ নির্বাচনেই আমরা বিজয়ী হবো। ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতির কারণে ভোট গ্রহণে একটু বিলম্ব হচ্ছে তবে এটি অস্বাভাবিক কিছু নয়।

একই কেন্দ্র পরিদর্শনের সময় বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতিকের প্রার্থী আলিমুজ্জামান সেলু বলেন, ভোটকেন্দ্রগুলোতে সকাল হতেই ভোটারেরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে আসছেন তবে ভোট গ্রহণ অনেক ধীর গতিতে হচ্ছে। এটি কোন কৌশল কিনা জানিনা। নির্বাচন এখন পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ হচ্ছে এবং সুষ্ঠ নির্বাচন হলে ধানের শীষ বিজয়ী হবে বলে আশা ব্যক্ত করেন।

নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মাসুদুর রহমান বলেন, নির্বাচন এখন পর্যন্ত সুষ্ঠ হচ্ছে। আশা করছি সকলেই শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিতে পারবে এবং কোন কারসাজি ব্যতিতই ফলাফল ঘোষণা হবে।

সাধারণ ভোটার ছাড়াও স্থানীয় সাংবাদিকগণ বলেন, ভোটে কারচুপি হবে এমনটি শোনা যাচ্ছিলো। তবে ফরিদপুরের বর্তমান এসপি মো. আলিমুজ্জামান স্যারের বলিষ্ঠ হস্তক্ষেপের কারণে সেটি হয়নি বলে সবাই মনে করছেন। তারা বলেন, নিরপেক্ষ ভোট হচ্ছে। দু’একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটলেও তেমন বড় কোন অঘটনা ছাড়াই নির্বাচন সম্পন্ন হবে বলে মনে করছেন তারা।

ফরিদপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. হাবিবুর রহমান জানান, একটি অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোন অনিয়মের অভিযোগ পাইনি কোথাও। নির্বাচনে প্রতিটি কেন্দ্রে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত ছাড়াও র‍্যাব, পুলিশ, বিজিবি ও আনসার মোতায়ন করা হয়েছে। তিনি জানান, নগরকান্দা পৌরসভায় মোট ভোটার রয়েছেন ৮ হাজার ৬৬৩ জন। এদের মধ্যে নারী ভোটার ৪ হাজার ৩৩০ জন এবং পুরুষ ৪ হাজার ৩৩৩ জন।

নগরকান্দা পৌরসভার এ নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতিকে নিমাই সরকার, বিএনপির ধানের শীষে আলিমুজ্জামান সেলু ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মাসুদুর রহমান মাসুদ ছাড়াও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কামরুজ্জামান মিঠু, দেলোয়ার হোসেন দুলু, আরিফ আহমেদ বিপ্লব ও মনিরুজ্জামান তুহিন। এছাড়া ৯টি ওয়ার্ডে ৩৮ জন কাউন্সিলর ও ১৩ জন সংরক্ষিত নারী আসনের প্রার্থী রয়েছেন।