চরভদ্রাসনে একরাতে লুট হলো দুই কৃষকের ১০টি গরু

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর টাইমস:

চরভদ্রাসনের দুর্গম চরে একই রাতে দুই জন গৃহস্থের ১০টি গরু লুটের ঘটনা ঘটেছে। সাধারণ গ্রামবাসী এ ঘটনার পর আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে।

গত শনিবার দিবাগত গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে চর হরিরামপুর ইউনিয়নের নতুন শালেপুর গ্রামে। লুট হওয়া গরুগুলোর মূল্য আনুমানিক ৭ টাকার মতো।

সংঘবদ্ধ প্রায় ১৮ জনের মতো দুর্বৃত্ত প্রথমে ওই গ্রামের আনসার মৃধার ছেলে মোকসেদ মৃধার (৫৫) বাড়িতে হানা দেয়। বাড়ির সকলকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মোবাইল ফোন হাতিয়ে তাঁদের বেঁধে ফেলে।

এরপর তাঁর গোয়াল হতে চারটি গরু ছিনিয়ে নিয়ে হানা দেয় প্রতিবেশী চান মিয়ার ছেলে আব্দুর রব মিয়ার (৫০) বাড়িতে। একই কায়দায় মোবাইল কেড়ে সকলকে বেঁধে সেখান হতে ৬টি গরু লুট করে চম্পট দেয়।

চরহরিরামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আমীর হোসেন খান ওই দুই গৃহস্থের বাড়ি হতে অস্ত্রের মুখে ১০টি গরু লুটের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার পর হতে তারা গরুর সন্ধান করছে। অপরাপর সাধারণ পরিবারগুলোও ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছে।

চরভদ্রাসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জাকারিয়া হোসেন বলেন, দুর্গম চরে জনবসতি খুবই কম। ভিকটিমদের আশেপাশে এক কিলোমিটারের মধ্যে অন্য কোন বসতি নেই। রাস্তাঘাটও নেই। তাই দুর্বৃত্তরা ঘটনার পর নির্বিঘ্নে যেতে পেরেছে।

এখনো এ ঘটনায় থানায় কেউ অভিযোগ করেনি জানিয়ে তিনি বলেন, খবর পেয়ে গ্রাম পুলিশকে তৎপর হতে বলা হয়েছে। মামলা হলে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।