October 21, 2020

মাদারিপুর পৌরসভার উপসহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ভাঙ্গার এসি ল্যান্ডের চিঠি

নির্বাচনের দিনে ধৃত মাদারিপুর পৌরসভার উপ সহকারী প্রকৌশলী লুৎফর রহমান রানা। ছবি- সংগৃহিত।

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর টাইমস:

একজন সরকারী চাকরীজীবী হয়েও উপজেলা পরিষদের উপ নির্বাচনে একজন প্রার্থীর পোলিং এজেন্ট হওয়া, কর্তব্যরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সাথে অসদারচরণ ও জাল ভোট প্রদানের প্রচেষ্টার অভিযোগে মাদরিপুর পৌরসভার উপসহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চিঠি দিয়েছেন ভাঙ্গার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আল আমীন। এব্যাপারে জেলা প্রশাসকের নিকট নির্বাচনের দিনেই লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন তিনি। এরপর মঙ্গলবার ওই অভিযোগটি জেলা প্রশাসনের স্থানীয় সরকার বিভাগে গ্রহণ করা হয়।

গত ১০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হয় চরভদ্রাসনের এ উপনির্বাচন। এই নির্বাচনে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রে হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আল আমীন। নির্বাচন শেষে তিনি জেলা প্রশাসকের নিকট লিখিত অভিযোগে বলেন, নির্বাচনের দিনে চর অযোদ্ধা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের দোতলায় বুথের সামনে এক ব্যক্তিকে সন্দেহভাজন হিসেবে দেখা যায়। তিনি জাল ভোট দিচ্ছেন এমন সন্দেহ হওয়ায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তখন জানা যায় তিনি একজন পোলিং এজেন্ট। তখন নির্বাচনের সুষ্ঠ পরিবেশ বজায় রাখার স্বার্থে তাকে হেফাজতে নেয়া হয়।

অভিযোগে বলা হয়, অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে হেফাজতে নেয়া ওই ব্যক্তির নাম লুৎফর রহমান রানা। তিনি মাদারিপুর পৌরসভার উপ সহকারী প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত। তিনি সরকারী কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা ১৯৭৯ এবং উপজেলা পরিষদ নির্বাচন বিধিমালা ২০১৩, উপজেলা পরিষদ (নির্বাচন আচরণ) বিধিমালা ২০১৬ এবং সরকারী কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপীল) বিধিমালা ২০১৮ এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। এব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন।

উপ সহাকরী কমিশনার ভূমি তার পত্রে আরো উল্লেখ করেন, এরপর ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী তাঁকে মোবাইলে ফোন করে ধৃত ব্যক্তিকে ছেড়ে দিতে বললে তিনি আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। এরপর সংসদ সদস্য চরভদ্রসানের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ফোন করে ভদ্রলোকের পক্ষে প্রকাশের অযোগ্য অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ ভাষায় গালিগালাজ করেন এবং তার বাসভবনে হামলা নির্দেশ দেন।

Please follow and like us
error0
Tweet 20
fb-share-icon20