আগস্ট 4, 2021

ফরিদপুরে একদিনে করোনা শনাক্তের রেকর্ড

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর টাইমস:

ফরিদপুরে বুধবার রেকর্ড সংখ্যক ৩৫ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী ও স্বামী-স্ত্রী রয়েছেন। এ নিয়ে ফরিদপুর জেলায় করোনাভাইরাস শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৯৭ জন। 

এছাড়া জেলার আলফাডাঙ্গায় এক মৃত ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষার পর তার শরীরেও করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে বুধবার। গত সোমবার সকালে মারা যান তিনি।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজের (ফমেক) পিসিআর ল্যাব সূত্রে পাওয়া গেছে এসব তথ্য।

নতুন করে শনাক্ত ৩৫ জনের মধ্যে ফমেক হাসপাতালের এক চিকিৎসক, ভাঙ্গার স্বামী-স্ত্রী, পাঁচ মাস বয়সী এক শিশু ছাড়াও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক নারী স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন।

নতুন করে আক্রান্তের মধ্যে পাঁচ মাসের শিশু থেকে শুরু করে ৬৫ বছরের বৃদ্ধও রয়েছেন। তাদের মধ্যে আলফাডাঙ্গায় ১২জন, নগরকান্দায় ছয়জন, বোয়ালমারীতে পাঁচজন, ভাঙ্গায় তিনজন এবং ফরিদপুর শহরসহ সদরে নয়জন রয়েছেন। 

সবমিলিয়ে এ পর্যন্ত জেলার বোয়ালমারীতে ২৬ জন, নগরকান্দায় ১৯ জন, ফরিদপুর সদরে ১৯ জন, আলফাডাঙ্গায় ১৭, ভাঙ্গায় ৬, সদরপুরে ৪, চরভদ্রাসনে ৩, মধুখালীতে ২ এবং সালথায় ১ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন।

ফমেকের পিসিআর ল্যাব সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার ফরিদপুর ও গোপালগঞ্জের মোট ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ফরিদপুরের ১২০ এবং গোপালগঞ্জের ৬৮ জন। তাদের মধ্যে মোট পজিটিভ এসেছে ৪৪ জনের। যাদের তিনজন ফরিদপুরের পুরোনো রোগী। এছাড়া গোপালগঞ্জের ৩ জন ও রাজবাড়ীর ২ জন রয়েছেন।

ফরিদপুরের এসপি মো. আলিমুজ্জামান বলেন, ফরিদপুর শহরসহ বিভিন্ন উপজেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে যে ৩৫ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে তাদের প্রত্যেকের বাড়ি বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। আক্রান্ত সবার শারীরিক অবস্থা যাচাই করা হচ্ছে। শনাক্তদের বাড়িতে রেখে কিংবা শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে ফরিদপুরের করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে স্থনান্তর করা হবে।

এদিকে, আলফাডাঙ্গায় পৌর সদর বাজারের চৌরাস্তায় ভূমি অফিস সংলগ্ন এলাকা থেকে গত সোমবার সকাল ৮টার দিকে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধারের পর তার শরীরের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয় পিসিআর ল্যাবে। এতে তার রিপোর্ট করোনাভাইরাস পজিটিভ এসেছে। 

ওই ব্যক্তিকে নিয়ে ফরিদপুরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মোট দুইজনের মৃত্যু হলো। অপরজন হলেন বোয়ালমারী উপজেলার চতুল ইউপির বাসিন্দা একজন মুক্তিযোদ্ধা। যিনি একইদিন দুপুর ১২টার দিকে নিজ বাড়িতে মারা যান।