ফরিদপুরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে সক্রিয় পুলিশ বাহিনী

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর টাইমসঃ

সারাদেশের করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে স্থানীয় প্রশাসন সামাজিক দূরত্ব বাজায় রাখার জন্য বিভিন্ন প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে গেলেও থামছে না তা। আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে স্থানীয় প্রশাসনের পাশে পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের কঠোর অবস্থানে দেখা গেছে।

ফরিদপুর জেলা শহর ও উপজেলার বিভিন্ন ছোট-বড় বাজার গুলোতে এখনো দেখা যাচ্ছে মানুষের বিচরণ। এদিকে স্থানীয় প্রশাসনের পাশে সক্রিয় রয়েছে পুলিশ সদস্যরা। শহরের প্রবেশের প্রধান প্রধান সড়কগুলো মুখে ৩০টি স্থানে সকাল থেকে অবস্থান নেয় পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা।

সকাল থেকে রাত পর্যন্ত জেলা সদর ও উপজেলাগুলোতে টহল জোরদার করেছে জেলা পুলিশ।

ফরিদপুরের পুলিশ সুপার আলিমুজ্জামান বলেন, আমরা সকলকে বারবার বুঝাচ্ছি যে আপনার কারণে যেনো আপনার পরিবার সহ সমাজের সাধারণ মানুষ ঝুঁকিতে না পরেন। সকলকে বাড়িতে থাকতে বলছি। কারো একান্ত প্রয়োজন হলে তিনি হেটে গন্তব্যে যাবেন।

ফরিদপুর জেলার ট্রাফিক ইন্সেপেক্টর মো. তুহিন লস্কর জানান, ‘এখনো যারা আইন মানছে না, তাদের বিরুদ্ধে ট্রাফিক আইনের আওতায় আনা হচ্ছে’। কোন ভাবে মোটরসাইকেল- অটো কিংবা এই যাতীয় যানে একাধিক মানুষ চলাফেরা করছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাশেদুল ইসলামের নেতৃত্বে সকাল থেকে শহরের ভাঙ্গা রাস্তা মোড়ে টহলরত দেখা গেছে । এসময় ওই সড়কদিয়ে যারা অযাচিত চলাফেরা করছে তাদের জিজ্ঞাসাবাদসহ নানা প্রশেśর মুখে পড়তে হচ্ছে। এমনকি অনেক যানবাহনকে ট্রাফিক আইনের আওতায় আনা হচ্ছে।

এ বিষয়ে পুলিশের ওই কর্মকর্তা জানান, ‘ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে শহরের পুলিশের ৩০টি টিম সক্রিয় ভাবে সড়ক গুলোতে অবস্থান নিয়েছে। কোন ভাবেই একাধিক মানুষ অযাচিত চলাফেরা করতে না পারে সে বিষয়ে কাজ করছি।’

এদিকে ফরিদপুরের সিভিল সার্জন ডা. সিদ্দিকুর রহমান জানান, জেলায় বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ২৯১। এছাড়া জেলায় নয় উপজেলাতে গত ২০ মার্চ থেকে ৬ এপ্রিল পর্যন্ত ২৯ জন আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি হয়েছে।