Sun. Dec 15th, 2019

দক্ষিণ এশিয় গেমসে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আশা ওপেনার নাঈমের

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর টাইমস:
নেপালে অনুষ্ঠিত দক্ষিণ এশিয়ান গেমসের ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন হতে চায় বাংলাদেশ। এ লক্ষ্য নিয়েই তারা মঙ্গলবার নেপালের উদ্দেশে দেশ ছাড়ছেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের তরুণ প্রজন্মের বাঁ হাতি ড্যাশিং ওপেনার ক্রিকেটার নাঈম শেখ।

আগামী ১ থেকে ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডু ও পোখরায় এ ১২ তম এ দক্ষিণ এশিয় গেমস অনুষ্ঠিত হবে। এবারের আসরে ৮ বছর পর আবারও ক্রিকেটের অভিষেক হবে এ গেমসে।

ভারতে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি সিরিজে অনন্য ব্যাটিং দেখানো এই ক্রিকেটার আজ রোববার (২৪ নভেম্বর) বিকেলে তার নিজ জেলা ফরিদপুরে আগমনের পর সাংবাদিকদের নিকট প্রতিক্রিয়ায় একথা বলেন।

সম্প্রতি ভারতের সিরিজের অভিজ্ঞতা সম্মন্ধে তিনি বলেন, সেখানে ভাল খেলতে পেরে আমার নিজেরও অনেক ভাল লেগেছে। যদিও সিরিজ জিততে পারিনি। তবে আশা রাখছি পরবর্তী সাউথ এশিয়ান গেমসে আমরা চ্যাম্পিয়ন হবো।

জাতীয় ক্রিকেট দলের এই বাঁ হাতি ওপেনার আজ রোববার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে ঢাকা থেকে সড়কপথে রাজবাড়ির গোয়ালন্দ মোড়ে পৌছলে সেখানে ফরিদপুরের ক্রিকেট ভক্তরা তাকে সেখানে গাড়ির বহর নিয়ে সস্বাগত জানায়। অপেক্ষারত মানুষ তাকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। এরপর শত শত মোটর সাইকেল ও মাইক্রোবাস নিয়ে তাকে নিয়ে আসা হয় শহরের গোয়ালচামটের বাসভবনে। এসময় তার পিতা আব্দুল আজিজ শেখ উপস্থিত হয়ে তাকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেন। আজ রাতেই তার ঢাকায় ফিরে যাওয়ার কথা রয়েছে।

মাত্র ২০ বছর বয়সী ফরিদপুরের ছেলে নাঈম শেখ গত ১০ নভেম্বর টি- টোয়েন্টি সিরিজে ভারতের মাঠেই ভারতের বিরুদ্বে অসাধারণ ব্যাটিং করেন। মাত্র ৪৮ বলে ৮১ রানের এক দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন তিনি। আন্তর্জাতিক ম্যাচে এই সিরিজেই তার অভিষেক ঘটে। তরুণ এ ওপেনার জীবনের প্রথম কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচে অংশ নিয়ে পুরো সিরিজেই দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন।

২০১৬-১৭ ক্রিকেট লীগে চট্টগ্রাম বিভাগের হয়ে ১ম শ্রেণির ক্রিকেটে তার অভিষেক ঘটে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে হারের পর বাংলাদেশের স্কোয়াডে অন্তর্ভুক্ত হন মারকুটে ওপেনার নাঈম শেখ।

বাংলাদেশের নতুন প্রজন্মের যে হাতে গোনা ক’জন তরুণ ফ্রি স্ট্রোক খেলতে পারেন এবং পেস বলে স্বচ্ছন্দে হাত খুলে খেলার সামর্থ্য রাখেন নাঈম খান তাদের অন্যতম।
মাত্র ৪ বছর আগে এসএসসি পরীক্ষায় ভাল ফল করতে না পেরে তিনি ভর্তি হন ফরিদপুর জুনিয়র ক্রিকেট ক্লাব কোচিংয়ে। ফরিদপুর জেলার হয়ে সর্বোচ্চ রান করে ২০১৭ সালে ঢাকা বিভাগের হয়ে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহ করেন।