Sat. Dec 14th, 2019

কিশোরী রূপালীকে সন্তানসহ উদ্ধার করেছে পুলিশ

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর টাইমস:

ফরিদপুরের বোয়ালমারী থেকে দুই বছর আগে অপহরণ হওয়া রূপালী পারভিন (১৫) কে তার গর্ভজাত একটি সন্তানসহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে মাগুড়া জেলার শালিথা থানার শার্শিনিয়া গ্রাম থেকে উদ্ধার করা হয় বলে পুলিশ জানায়। এ ঘটনায় অপহরণ মামলার আসামী সাকিল শেখকে আটক করা হয়েছে।

রুপালীকে অপহরণের ঘটনায় থানায় মামলা করার পরেও মেয়েকে উদ্ধার করতে না পেরে গত ২৭ অক্টোবর রাজপথে পরিবার নিয়ে মানববন্ধন করেন তার বাবা মনসুর শেখ। এব্যাপারে ফরিদপুর টাইমসসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হলে প্রশাসনের টনক নড়ে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালের ২০ সেপ্টেম্বর সকালে বাড়ি থেকে কোন্দারদিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসায় যাওয়ার পথে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করা হয়। এ ঘটনায় চারজনকে আসামী করে রূপালীর বাবা মনসুর শেখ বাদি হয়ে ফরিদপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে একটি মামলা দায়ের করেন। বোয়ালমারীর উপজেলার কোন্দারদিয়া গ্রামের আদেল শেখের ছেলে সাকিল শেখ (২২) সহ এ মামলায় তারিকুল (২০), মিন্টু শেখ (২৩) ও ইউসুফ শেখ (২৮) এ মামলায় আসামী করা হয়।

বোয়ালমারী থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. শহিদুল ইসলাম জানান, অপহরণ হওয়া রূপালীকে রোববার দিবাগত রাত ২টার দিকে মাগুরা জেলার হাজরাহাটি তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশের সহযোগিতায় শালিখা থানার শার্শিনিয়া ফুলতলা গ্রাম থেকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় আসামী সাকিল শেখকে (২২) আটক করা হয়। তিনি জানান, অপহরণের পর রূপালীকে বিয়ে করে সাকিল। বর্তমানে রূপালির আট মাসের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। আটক সাকিলকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।