সদরপুরে নিহত কামরুলের পরিবারকে রেশন দিলেন এএসপি

আহম্মদ ফিরোজ, ফরিদপুর টাইমস: (১৫ মার্চ ২০১৯ শুক্রবার)
ফরিদপুরের সদরপুরে ঠ্যাঙ্গামারা গ্রামে অপহরনের পরে নৃশংস ভাবে হত্যার শিকার শিশু ভ্যানচালক মো. কামরুলের পরিবারের খোঁজ খবর নিলেন ভাঙ্গা সার্কেল এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজী মো. রবিউল ইসলাম। এসময় তিনি অসহায় এই পরিবারটিকে নিজের রেশনের পুরো অংশ অনুদান হিসেবে তুলে দেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সদরপুর উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের কামরুলদের বাড়িতে উপস্থিত হন এই পুলিশ কর্মকর্তা। ৬ বছর আগে জন্মদাতা বাবার মৃত্যুর পরে সংসারের হাল ধরতে স্কুল ছেড়ে কিশোর বয়সেই ভ্যান চালিয়ে উপার্জনের পথ বেঁছে নিয়েছিলো কিশোর কামরুল। তাকে হত্যার পর একমাত্র ছোট ভাই ও পুত্রহারা মায়ের এই পরিবারটি অসহায় হয়ে পড়েছে।

এ অবস্থায়, সরকার থেকে প্রাপ্ত এ মাসের রেশন চাল, ডাল, আটা, চিনি, তেলসহ প্রাপ্ত খাদ্য সামগ্রী কামরুলের পরিবারকে দিয়ে যান তিনি। এসময় তিনি কামরুল হত্যাকান্ডে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করা হবে বলেও জানান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সদরপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ লুৎফর রহমান, এস আই মোঃ কামরুজামান।

উল্লেখ্য, সদরপুর উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের ঠেঙ্গামারা গ্রামের মৃত ইসহাক তালুকদারের পুত্র ভ্যান চালক কামরুল ইসলাম (১২) কে অপহরণ করে নির্মম ভাবে হত্যা করে দুর্বত্তরা। গত ২মার্চ ওই ইউনিয়নের শৌলডুবী মজুমদার বাজার এলাকার সরিষা ক্ষেত থেকে অর্ধগলিত অবস্থায় কামরুল এর ক্ষতবিক্ষত লাশ পাওয়া যায়।

কামরুলের লাশ উদ্ধারের আগেই তার মা আসমা বেগম বাদী হয়ে সদরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এ হত্যা মামলায় হান্নান মাতুব্বর, জাকির হোসেন ও ইউনুস নামের তিনজন কে আসামী করা হয়। এর মধ্যে হান্নান ও জাকিরকে আটক করেছে সদরপুর থানা পুলিশ। ইউনুছ কে আটকের জন্যে পুলিশ অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানায় পুলিশ।